LifestyleGhar
Everything Here । Search Your Content । Give your Feedback Us

[2021 BEST] Video Editing এর জন্যে এপ্স

 

Video Editing শুনলেই আমাদের অনেকের মনেই ভয় চলে আসে। কত কঠিন একটা কাজ।

কিভাবে করবো এটা। কিংবা আমাকে দিয়ে এটা সম্ভব হবেনা।

ভিডিও এটিটিং একটি প্রফেশনাল কাজ। যার জন্যে অনেক বেশি বেশি শিখতে হয়। কাজ করতে হয়।

Creativity দেখিয়ে ভালো ভালো কাজ করার মাধ্যমেই একজন ভালো প্রফেশনাল Video Editor হওয়া সম্ভব হয়ে থাকে।

এটি সহজ কাজ নয়, কিন্তু কঠিন কাজও নয়।

আমরা এমন কিছু বিষয় এবং এপ্সের কথা জানবো যেগুলা দিয়ে খুব সহজেই আমরা ভিডিও এডিটিং করতে পারবো।

প্রথমে আমরা জেনে নেই ভিডিও এডিটিং কী এবং এটির কাজ কী।

মূলত আমরা যেই ধরনের কন্টেন্ট গূলো ইউটিউব,ফেইসবুক,মুভি,নাটকে দেখি তার সবটাই মূলত ভিডিও এডিটিং এর কাজ। একজন প্রফেশনাল Video Content Maker সবসময় তার ভিডিও সুন্দর করতে ভিডিও ভালোভাবে এডিটিং করে থাকে।

একটি ভিডিওকে মূলত এডিটিং এর মাধ্যমেই আরো সাবলীল এবং গুছিয়ে সুন্দর করা যায়। আমরা যে ধরনের Movie দেখি সেগুলা মূলত এডিটিং এর জন্যেই এত সুন্দর হয়ে থাকে।

তাই আমরা ধরেই নিতে পারি ভিডিও এডিটিং এবং কাজ আমাদের জন্যে কতটা গুরুত্বপূর্ন।

Video Editor

কীভাবে Video Editing কাজ করা যেতে পারে

ভিডিও এডিটিং এর কাজ খুব কঠিন কোনো কাজ নয়। যা ইতি পূর্বে বলা হয়েছে। তবে এর জন্যে প্রয়োজন আমাদের প্র্যাক্টিস। আমরা যেকোনো কাজের আগেই সেটির ব্যাপারে যত বেশি জানবো তত বেশি অভিজ্ঞ হবো। তাই Video Editing কাজ শুরুর পূর্বে আমাদের এটি শিখতে হবে।

বিভিন্ন Online Tutorial রয়েছে এটির ব্যাপারে। যেখান থেকে Premium কোর্স কিনে ভিডিও এডিটিং শিখা যেতে পারে। তবে আপনি চাইলে ইউটিউব থেকেও শিখে নিতে পারেন।

বর্তমান সময়ে Youtube একটি দারুন প্ল্যাটফর্ম। যা আমাদের জন্যে ফ্রি তেই অনেক কিছু ঘরে বসেই শিখার সুযোগ করে দিয়েছে।

তাই কোনো প্রিমিয়াম কোর্স না কিনেই চাইলে ইউটিউবে বিভিন্ন ভিডিও এডিটিং এর ভিডিও দেখে শিখা যেতে পারে। ইউটিউবে রয়েছে লাখো ভিডিও এর উপরে।

Editing Apps

Video Editing Apps গুলো

মোবাইল এবং কম্পিউটার দুটোর মাধ্যমেই ভিডিও এডিটিং করা যেতে পারে। যার জন্যে যেটা সুবিধার কিংবা সহজ মনে হবে সেটি দিয়েই করতে পারবেন।

তবে উন্নত এবং প্রফেশনালী ভাবে ভিডিও এডিটিং এর জন্যে অবশ্যই একটি কম্পিউটারের ভূমিকা নেই। তবে যাদের মোবাইল আছে তাদের দুশ্চিন্তার কারনে নেই।

আপনি চাইলেই মোবাইল দিয়েও ভালো মানের ভিডিও এডিটিং করতে পারবেন। তার জন্যে রয়েছে কিছু প্রয়োজনিয় এপ্স। নিচে সেগুলা নিয়ে আলোচনা করা হবে।

Filmora Video editor

Wondershare Filmora (Mobile+pc)

অনেকেই হয়ত জেনে থাকবেন ভিডিও এডিটিং এর জন্যে এই সফটওয়ারটি কতটা Powerful এবং দরকারি। এটির রয়েছে Free and Premium দুটো ভার্শন। ফ্রি ভার্শনেও রয়েছে বেশ কিছু ফিচার্স।

যার মাধ্যমে আপনার প্রয়োজনীয় ভিডিওটিকে সাজাতে পারবেন আরো সুন্দরভাবে। এটি মোবাইল এবং কম্পিউটার দুটোর জন্যে Available রয়েছে। এই এপ্সটির কিছু গুরুত্বপূর্ন সুবিধা :

  • Add Music your
  • A lots of color filter
  • Video Trim System
  • Save HD quality
  • Without Watermark(Premium)

 

Inshot Video editor

Inshot App (Mobile)

ইনসট এপ্সটি বর্তমান সময়ের অন্যতম সেরা একটি এপ্স। যার মাধ্যমে মোবাইল দিয়ে খুব কম সময়ের মধ্যে দারুন ভিডিও এডিটিং করা যায়। এই এপ্সটি খুব কম র‍্যাম সম্পন্ন মোবাইল গুলোতেও সাপোর্ট করে এবং ভালো চলে। যার কারনে এটি Android ব্যবহারকারীদের কাছে খুব জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে।

বর্তমানে আমরা লক্ষ্য করলেই দেখতে পাবো ফেইসবুকে এই এপ্স দিয়ে বানানো ভিডিও গুলো খুব প্রচলিত। যা মানুষের কাছে খুব প্রিয়। এটির বেশ কিছু ভালো গুনাগুন রয়েছে।

  • Edit video and photo
  • Also have own music
  • Sort sounds
  • Mobile size converting options

 

Kinemaster Video editor
Kinemaster(Mobile)

এই এপ্সটি ব্যাপারে জানেননা এমন মানুষ খোজে পাওয়া যাবেনা। android ব্যাবহারকারী প্রায় সবাই এই এপ্সটির সাথে পরিচিত। এটির মাধ্যমে খুব সহজে যেকোনো ভিডিও এডিট করা সম্ভব হয়।

প্রাথমিক ভাবে ইন্টারনেটে যখন খুব কম ভিডিও এডিটিং এপস ছিলো তখন এই এপ্সটির মাধ্যমে সবাই খুব ভালোভাবে ভিডিও এডিট করা হত।

এটির মাধ্যমে যেকোনো ভিডিওকে প্রফেশনালী ভাবে তৈরী করা যেত।

যার কারনে অনেক ভিডিও কন্টেন্ট এই এপ্সটি দিয়ে কাজ করতেন। এটিতে বেশ কিছু লেয়ারের মাধ্যমে এডিট করা যেত। আরো বিশেষ কিছু অপ্সহন রয়েছে যেমন,

  • Edit video with green effect
  • A lots of Filter
  • Edit video Like movie,Drama
  • Convert video 3gp,mp4

 

Catcup Video editor

CapCUT(Mobile)

দারুন এই এপটি ২০২১ সালে এসে বেশ জনপ্রিয়তা পেয়েছে। বিশেষ ধরনের কিছু Feature নিয়ে তৈরী করা এই এপ্সটি বিশ্বজোড়ে এখন পপুলার।একসাথে অনেক ছবি দিয়ে ভিডিও তৈরী করার জন্যে এই এপ্সটি খুবই বিখ্যাত।

বর্তমান সময়ে Tiktok,Likee তে এই এপ্সের মাধ্যমে Edit করা ভিডিও দিয়েই জনপ্রিয়তা পাচ্ছেন অনেকে।

যার কারনেই এটি দিন দিন জনপ্রিয়তার শীর্ষে পৌছেছে।এপ্সটির কিছু বিশেষ দিক,

 

  • Create video from photos
  • Amazing Animation
  • Text Style and stylish font
  • Huge sound collection

 

Powerdirector Video editor
PowerDirector(Mobile+Pc)

পাওয়ার ডিরেক্টর একটি স্ট্যাবল এবং স্মুথ ভিডিও এডিটর। যার মাধ্যমে আপনি খুব সহযে আপনার ভিডিওকে প্রফেশনাল ভিডিও বানাতে পারেন। এটির ইন্টারফেস এবং ব্যবহারের জন্যে খুব সহজ।

যার কারনে যে কেউ এই এপ্সটির মাধ্যমে খুব সহজেই যেকোনো ভিডিও এডিট করতে পারবেন অনায়াসে।

এছাড়া এটির অন্য আরো সুবিধা গুলো হচ্ছে এটি মোবাইল এবং কম্পিউটার দুটি জায়গাতেই খুব ভালোভাবে ব্যবহার করতে পারবেন। আরো যেই বিশেষ Feature গুলো রয়েছে,

 

  •  Cinematic Filter
  • Layer Pannel
  •  Colorful Animation Collection
  • Video Import very fast

উপরে যেই এপ্স গুলোর ব্যাপারে আলোচনা করা হয়েছে এগুলা খুব প্রফেশনাল এপ্স। খুব সহজেই এই এপ্স গুলোর মাধ্যমে ভিডিও এডিটিং করা যাবে।

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *