LifestyleGhar
Everything Here । Search Your Content । Give your Feedback Us

হতাশা বা ডিপ্রেশন দূর করুন।(COME BACK FROM DEPESSION)

Table Of Contents hide

ডিপ্রেশন জিনিসটা কি? বিশেষজ্ঞদের মতে ডিপ্রেশন জিনিসটা একটা মানসিক অসুস্থতা।

যা আপনার চিন্তা, ভাবনা কিংবা কাজের উপর নেগেটিভ প্রভাব ফেলে তাই ডিপ্রেশন।

ডিপ্রেশন

ডিপ্রেশনের লক্ষন গুলো কী কী?

কিছু কিছু বিষয় আছে যেগুলা যদি আপনার সাথে ঘটে থাকে থাহলে আপনাকে বুঝতে হবে আপনি ডিপ্রেসড। Depression মানুষের মানসিক এবং শারীরিক দুটোকেই ধ্বংস করে দেয়। অনেকেই জানেন না তিনি ডিপ্রেশন আছেন কি না। তাই এই কিছু লক্ষন আছে যেগুলা যদি আপনার মাঝে থাকে থাহলে বুঝে নিবেন আপনিও ডিপ্রেসড।

  • মন খারাপ থাকা।

কোনো কারন ছাড়াই যখন আপনার মন খারাপ থাকবে।

  • অতিরিক্ত খাবার।

যার মাধ্যমে আপনি কখনো অনেক বেশি খাবেন কিংবা একদম ই খাবেন না।

  • নিজেকে দোষী মনে করা।

সবসময় নিজেকে নিস্বকর্ম মনে করা বা নিজেকে দোষী মনে করা।

  • কাজে মনযোগ না দেয়া।

কাজ-কর্মে কোনো মনযোগ না দেয়া। কাজের প্রতি অনিহা চলে আসা।

  • ঘুমানো বা কম ঘুমানো।

খুব কম ঘুমানো কিংবা মাঝে মাঝে অতিরিক্ত ঘুমানো।

  • ধৈর্য্যহারা থাকা।

ধৈর্য ধারন না করা কোনো কিছুতে।

  • এনার্জি হারিয়ে ফেলা।

নিজের শক্তি কিংবা আত্মবিশ্বাস এর প্রতি অনুভব করতে না পারা।

  • ইন্টারেস্টেড কাজ গুলোর ইচ্ছা না থাকা।

অনেক পছন্দের কাজ ছিলো যা আগে করতে ভালো লাগতো কিন্তু এখন ভালো লাগেনা।

  • আত্মহত্যা করার চিন্তা।

সর্বশেষে আত্মহত্যা করার কথা চিন্তা করা।

এখানের ৯টি বিষয়ের মধ্যে যদি আপনি আপনার সাথে ৫টি বিষয়ের মিল থাকে এবং এটি ২সপ্তাহ ধরে চলে থাকে, থাহলে আপনাকে ধরে নিতে হবে আপনি ডিপ্রেশনে ভুগছেন। যে লক্ষন গুলোর কথা বলা হলো সেগুলা যদি আপনার মধ্যে থাকে থাহলে আপনি Depressed.

আরো পড়ুন – WOMEN’S HEALTH PROTECTIONS

HOW TO REMOVE YOUR MOBILE ADDICTION

ডিপ্রেশন dUr

কিভাবে ডিপ্রেশন থেকে মুক্ত হবেন?

  • Do Exercise বা ব্যায়াম করা।

আপনাকে সকালে উঠে শারীরিক ব্যায়াম করতে হবে। মনে রাখতে হবে আপনাকে বাচতে হবে। আর বাচতে হলে আপনাকে শারীরিক ব্যায়াম করতে হবে। খুব সকালে উঠুন। ফুটবল/ক্রিকেট খেলুন,জিমে যান, দৌড়াদৌড়ি করুন। আপনাকে ফিজিক্যাল এক্টিভিটি করতে হবে। এতে কি হবে আপনার ব্রেন থেকে এন্ড্রোফিজ এবং মরফ্রিজ থেকে হরমোন নিস্বরিত হবে। যার মাধ্যমে আপনাকে নিজের প্রতি পজিটিভ ফিলিংস দিবে। এছাড়াও আপনার মন শরীর আপনার সবকিছু একদম রিলেক্স থাকবে।

Learn more about Depression –  What is Depression?

  • See Goal And Rotined Work বা লক্ষমাত্রা নির্দিষ্ট করে কাজ করা।

এটা খুব কঠিন কিছুনা। আপনাকে প্রত্যেকদিন খুব সকালে ঘুম থেকে উঠতে হবে। ঘুম থেকে উঠে একটা রুটিন বানাতে হবে আপনার সারাদিনের কাজকর্মের। প্রত্যেকটা কাজের পাশে একটা করে বক্স দিয়ে রাখবেন। আপনার কাজটা যখন সম্পূর্ন হয়ে যাবে আপনি তখন বক্সের পাশে একটা টিক মার্ক দিয়ে দিবেন। এভাবেই আপনার প্রত্যেকদিনের কাজ গুলোকে রুটিন আকারে সম্পূর্ন করতে পারবেন। খুব ছোট ছোট কাজ গুলো করবেন। মোটকথা সারাদিন নিজেকে ছোট ছোট কাজ গুলোর মধ্যে ব্যস্থ রাখতে হবে। আর এভাবেই ধীরে ধীরে ডিপ্রেশন থেকে Move করতে পারবেন।

  • Make Time With Positive People বা ভালো রাখে মানুষদের সাথে সময় কাটান।

যেই মানুষ গুলো আপনাকে ভালো রাখে বা সারাজীবন সাপোর্ট করে আসছে তাদের সাথে সময় কাটান। ফ্যামিলি,বন্ধুবান্ধব যে কেউ। আপনার আশেপাশের পজিটিভ মানুষ গুলো যখন আপনার সাথে ভালো ভাবে কথা বলবে তখন আপনার মাঝে অন্যরকম একটা ভালো লাগা কাজ করবে।

  • Do Religious Work বা ধর্মীয় কাজ করা।

আপনি মুসলিম হোন – আপনি নামাযে যান। আপনি হিন্দু হোন – মন্দিরে যান। আপনি যে ধর্মের হোন না কেনো আপনার ধর্মীয় কাজ গুলোর সাথে সম্পৃক্ত থাকুন। নামায আপনার আত্মার ব্যায়াম করতে সহায়তা করবে। প্রত্যেক ধর্মের কাজই আপনাকে মানসিক ভাবে শান্তি দিবে।

ডিপ্রেশন দূর

  • Sleep Well বা ভালো ভাবে ঘুমানো।

অবশ্যই আপনাকে ৭ঘন্টার মত ঘুমাতে হবে। ডিপ্রেশনে ঘুম আসেনা এটা ভাবলেই আপনি ঘুমাতে পারবেন না। তাই অবশ্যই আপনাকে ভালো ঘুমাতে হবে। ঘুম আপনাকে সবকিছু থেকে দূরে রাখবে। ঘুমাতে যাওয়ার আগে Mobile,Laptop দূরে রাখতে হবে।

  • Go on a Trip বা ঘুরতে যান।

ভালো থাকার অন্যতম একটা উপায় হচ্ছে ঘুরতে যাওয়া। আপনি মাঝে মাঝে ঘুরতে যাবেন। এটা আপনাকে আপনার মনের বিকাশকে আরো জাগ্রত করে তুলবে। তাই চেষ্টা করবেন ঘুরতে যাওয়ার।

আপনাকে সবসময় হাসিখুশি থাকতে হবে। ডিপ্রেশন একটি শব্দ। চাইলেই এটি থেকে বের হয়ে আসা সম্ভব।

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *